বীর মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীকে ‘গণধর্ষণ’, কিশোর গ্রেপ্তার

প্রতীকী ছবি

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় এক বীর মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীকে (৬২) গণধর্ষণের খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গতকাল রোববার গভীর রাতে বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগীর ছেলে। দুজনের নামে ও তিনজনকে অজ্ঞাত আসামি করে মোট পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলাটি করা হয়।

আজ সোমবার সন্ধ্যায় মামলার এজাহার নামীয় দ্বিতীয় আসামি কিশোর রবিউলকে (১৭) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রবিউলের বাবার নাম আবুল কালাম। তারা উপজেলার উত্তর মিঠাখালী গ্রামের বাসিন্দা। আরেক আসামির নাম লিসান (১৯)। তার বাবার নাম টুকু জমাদ্দার। লিসান ও বাকি তিনজনসহ মোট চারজনকে এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, গত ৩০ অক্টোবর সন্ধ্যায় ভুক্তভোগী একটি বিয়ে বাড়ি থেকে নিজের বাড়ি ফিরছিলেন। স্থানীয় বারেক চৌকিদারের পরিত্যাক্ত গোয়াল ঘর পর্যন্ত তিনি আসার পর সেখানে আগে থেকে লিসান, রবিউল ও অজ্ঞাত তিনজন মিলে তাকে গণধর্ষণ করেন। ভুক্তভোগী গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পিরোজপুর সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আ.জ.ম মাসুদুজ্জামান মিলু মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘এক আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।’