পাটগ্রামে ধর্ষণের শিকার সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা

ছাগল আনতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার লালমনিরহাটের পাটগ্রামের সেই সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় মেয়েটির মা পাটগ্রাম থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

পাটগ্রাম থানার ওসি সুমন কুমার মোহন্ত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পাটগ্রাম থানা-পুলিশ অভিযান চালিয়ে নুর ইসলাম বাবু (৩৫) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে। তিনি জোংড়া ইউনিয়নের ইসলামপুর এলাকার কাশেম আলীর ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার জোংড়া ইউনিয়নের ইসলামপুর এলাকার সপ্তম শ্রেণির মাদ্রাসা ছাত্রী গত ৫-৬ মাস আগে বাড়ির পাশে রেল লাইনের ধারে বিকেলে ছাগল আনতে গেলে একই এলাকার কাশেম আলীর ছেলে নুর ইসলাম বাবু (৩৫) ফুসলিয়ে ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ ঘটনা কাউকে জানালে ওই ছাত্রীকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে পরবর্তীতে একাধিকবার ধর্ষণ করে।

ধর্ষণের শিকার মেয়েটির শারীরিক অবস্থার পরিবর্তন দেখা দিলে তার চাচি মেয়েটির কাছে বিষয়টি জানতে চায়। মেয়েটি জানায় প্রতিবেশী নুর ইসলাম বাবু তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছে।

এ ঘটনায় মেয়েটির মা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার (২২) অক্টোবর দুপুরে পাটগ্রাম থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে নুর ইসলাম বাবুকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।

ওই ছাত্রীকে রাতেই স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে বলে জানান ওসি।