হাতীবান্ধায় সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলা

সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে এবার লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় সাংবাদিক সেলিম সম্রাট সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন। এসময় তার ক্যামেরা ভাংচুর করা হয়।

রোববার (১১ জুলাই) বিকাল ৫টায় ওই উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ড (উত্তর পাড়া) এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ৩ জনকে আসামী করে হাতীবান্ধা থানায় লিখিত অভিযোগ দেয় সাংবাদিক সেলিম সম্রাট।

 

হাতীবান্ধাউপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসাধীন সাংবাদিক সেলিম সম্রাট  

আহত সাংবাদিক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। সে দৈনিক বাহান্নর আলো ও সৃষ্টি টেলিভিশনের লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধি এবং লালমনিরহাট রিপোর্টাস ইউনিটির তথ্য বিষয়ক সম্পাদক।

জানা গেছে, রোববার বিকেলে বড়খাতা ইউনিয়নের উত্তর পাড়া এলাকায় জমি জবরদখল সংক্রান্ত সংবাদ সংগ্রহ করতে যান সাংবাদিক সেলিম সম্রাট। এসময় তাকে সংবাদ সংগ্রহে বাধা প্রদান করেন আইডিকার্ড দেখতে চান মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে মোঃ তাইজুল ইসলাম মুকুট। সাংবাদিক সেলিম সম্রাট তার পরিচয় পত্র দেখালে তা কেড়ে নিয়ে অতর্কিতভাবে তার উপর হামলা করে গুরুতর আহত করেন। এতে তার ক্যামেরা ভাংচুর করা হয়।
পরে আহত অবস্থায় সাংবাদিক সেলিম সম্রাটকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে লালমনিরহাট রিপোর্টাস ইউনিটির সভাপতি মোঃ ইউনুস আলী বলেন, আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল তাই আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে কাজ করবো। দ্রুততম সময়ের মধ্যে অপরাধীকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা না হলে মানববন্ধনসহ কঠোর আন্দোলন করা হবে বলে জানান তিনি।

এবিষয়ে কথা বলার জন্য হামলাকারী তাইজুল ইসলাম মুকুটের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদুল আলম বলেন, এ বিষয়ে মামলা নেওয়া হয়েছে এবং অভিযুক্ত আসামীদের আটক করার জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।