প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণচেষ্টায় ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে, মুক্তি পেয়েই শোডাউন

জামিনে মুক্ত হয়ে বিজয় চিহ্ন দেখাচ্ছেন ছাত্রলীগ নেতা দিপু মিয়া (লাল গোল চিহ্নিত)।

প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা মামলায় কারাগারে যাওয়া নরসিংদীর রায়পুরায় পৌর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. দিপু মিয়া জামিনে মুক্ত হয়েছেন। গতকাল বুধবার আদালত তাকে জামিনে মুক্তি দেওয়া

    র আদেশ দেন। পরে আজ বৃহস্পতিবার সকালে তিনি কারাগার থেকে মুক্ত হন।

    দিপু মিয়াকে কারাগার থেকে তার বাড়িতে নিয়ে আসার পথে মোটরসাইকেলের বিশাল শোভাযাত্রার মাধ্যমে তাকে শুভেচ্ছা জানানো হয়। শোভাযাত্রা শেষে সকলকে ধন্যবাদ জানান এ ছাত্রলীগ নেতা।

    এর আগে গত ২৬ নভেম্বর এক প্রবাসীর স্ত্রী (২৯) বাদী হয়ে দিপু মিয়াকে আসামি করে রায়পুরা থানায় মামলা করেন। ওই দিন রাতে রায়পুরা পৌর এলাকার রামনগরহাটি গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরের দিন ২৭ নভেম্বর বিকেলে দিপু মিয়াকে নরসিংদীর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট অনামিকা চৌধুরীর আদালতে তোলা হলে তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

    মামলার সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগীর স্বামী বিদেশে থাকার সুযোগে দিপু প্রায়ই ওই গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দিতেন। নানা সময় দেওয়া তার কুপ্রস্তাবে সম্মত না হওয়ায় দিপু সুযোগ পেলে সম্ভ্রমহানির হুমকি দিয়েছিলেন তিনি। গত ২৬ নভেম্বর সকালে গৃহস্থালি কাজে ব্যস্ত থাকার সময় দিপু মিয়া ওই গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করেন। পরে পেছন দিক থেকে মুখ চেপে ধর্ষণের চেষ্টা চালান তিনি। এ সময় ওই গৃহবধূর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে দিপু দৌড়ে পালিয়ে যান। পরে প্রতিবেশীরা ওই নারীকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে সেখানে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।