প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহায়তার চেক পেলেন লালমনিরহাটের ১৮ সচ্ছল সংবাদকর্মী,গ্রহণ করেননি দুজন।

0
7

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ  বুধবার ৫ আগস্ট প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহায়তার ১০হাজার টাকার অনুদানের চেক লালমনিরহাটের ১৮জন সংবাদকর্মীর মাঝে বিতরণ করা হয়েছে। যাদের বেশির ভাগই সচ্ছল। কেউ কেউ স্কুল কলেজে চাকরি করেন।

লালমনিরহাট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে বুধবার ৫ আগস্ট দুপুরে সময় টেলিভিশন চ্যানেলের জেলা প্রতিনিধি ও প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মোফাখখারুল ইসলাম মজনুর সভাপতিত্বে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রফিকুল ইসলাম প্রধান অতিথি ও লালমনিরহাট সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান সুজন বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সাংবাদিকদের হাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সহায়তার ১০হাজার টাকার ‘একাউন্ট পে’ চেক প্রদান করেন।
তবে এ চেক গ্রহণ করেননি প্রথম আলোর লালমনিরহাট প্রতিনিধি আব্দুর রব সুজন ও ডেইলি স্টারের লালমনিরহাট প্রতিনিধি এস দিলীপ রায়।

চেক গ্রহণ করছেন জিটিভির আলতাফুর রহমান আলতাফ

প্রধানমন্ত্রীর অনুদান/সহায়তার চেক প্রাপ্ত সংবাদকর্মীরা হলেন- দীপ্ত টেলিভিশন ও দৈনিক যুগের আলোর জেলা প্রতিনিধি এবং প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আহমেদুর রহমান মুকুল, চ্যানেল টোয়েন্টিফোর টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার (লালমনিরহাট) মিলন পাটোয়ারী, সাপ্তাহিক লালমনিরহাট বার্তার সম্পাদক ও প্রকাশক এবং বিটিভি ও ইত্তেফাকের জেলা প্রতিনিধি এসএম শফিকুল ইসলাম কানু, প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি আবদুর রব সুজন, ডেইলী স্টারের নিজস্ব সংবাদদাতা এস দিলীপ রায়, দৈনিক সমকাল ও এটিএন বাংলা এবং এটিএন নিউজের জেলা প্রতিনিধি সহকারি অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন স্বপন, দৈনিক জনকণ্ঠ ও বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা’র নিজস্ব সংবাদদাতা (লালমনিরহাট) প্রভাষক জাহাঙ্গীর আলম শাহীন, যমুনা টেলিভিশন ও বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম এবং খোলা কাগজের জেলা প্রতিনিধি শরীরচর্চা শিক্ষক আনিছুর রহমান লাডলা, একাত্তর টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি উত্তম কুমার রায়, আরটিভি লালমনিরহাটের স্টাফ রিপোর্টার হাসান-উল-আজিজ, বৈশাখী টেলিভিশন ও দৈনিক যায়যায়দিন পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি তৌহিদুল ইসলাম লিটন, ডিবিসি টেলিভিশন চ্যানেলের জেলা প্রতিনিধি মাজেদ মাসুদ, ইনডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন চ্যানেলের জেলা প্রতিনিধি মাজহারুল ইসলাম বিপু, গাজী টেলিভিশন চ্যানেল ও সারাবাংলা ডটনেটের জেলা প্রতিনিধি আলতাফুর রহমান আলতাফ, দৈনিক জনতার জেলা প্রতিনিধি আশরাফুল আলম দৌলত, একুশে টেলিভিশন ও বাংলাদেশ বেতারের জেলা প্রতিনিধি গোকুল রায়, আমাদের নতুন সময় ও দৈনিক সংগ্রামের জেলা প্রতিনিধি লাভলু শেখ এবং দেশ টেলিভিশন ও দৈনিক ভোরের কাগজ এবং দৈনিক করতোয়ার জেলা প্রতিনিধি বেলাল হোসেন।

চেক গ্রহণ করছেন যুগের আলো প্রতিনিধি আহমেদুর রহমান মুকুল

তবে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে চেক গ্রহণ করেন আহমেদুর রহমান মুকুল, মিলন পাটোয়ারী, মাজেদ মাসুদ, আলতাফুর রহমান আলতাফ, আশরাফুল আলম দৌলত, জাহাঙ্গীর আলম শাহীন, উত্তম কুমার রায়, তৌহিদুল ইসলাম লিটন, মাজহারুল ইসলাম বিপু।

চেক গ্রহণ করছেন চ্যানেল২৪ লালমনিরহাট প্রতিনিধি মিলন পাটোয়ারী

এর আগে চেক বিতরণ বিষয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা বিশ্বাস করি লালমনিরহাট জেলায় প্রায় ১১০জন
সাংবাদিক রয়েছে। করোনা সংকটে প্রথম পর্যায়ে জেলায় ১৮জন সংবাদকর্মী ১০হাজার টাকার চেক পেয়েছে। পর্যায়ক্রমে অন্য সংবাদকর্মীবৃন্দও
প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহায়তা/অনুদানের ১০হাজার টাকার ‘একাউন্ট পে’ চেক পাবে। বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনার জন্য জেলা প্রশাসক মহোদয়ের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়কে অবহিত করা হবে।

সভাপতির বক্তব্যে সাংবাদিক মোফাখখারুল ইসলাম মজনু বলেন, করোনা সংকটে
সংবাদকর্মী বন্ধুদের ১০হাজার টাকা করে প্রনোদনা প্রদান করায় প্রধানমন্ত্রীকে জেলাবাসীর পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জানাই এবং আগামীতে অবশিষ্ট সংবাদকর্মীদের প্রত্যেককে আরও সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবেন বলে আমরা প্রত্যাশা করি।

এদিকে প্রনোদনার চেক গ্রহণ না করা দৈনিক প্রথম আলোর লালমনিরহাট প্রতিনিধি আব্দুর রব সুজন লালমনিরহাট নিউজ২৪ কে জানান, আমি সাংবাদিক প্রনোদনার দশ হাজার টাকার চেকটি গ্রহণ করিনি, প্রনোদনার চেক প্রাপ্তির জন্য আমি কাউকে আমার পেশাগত ডকুমেন্ট এর ফটোকপি দেইনি এবং আবেদনও করিনি। বিষয়টি লালমনিরহাট প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক কে ইতিপূর্বে অবহিত করেছি। এ অবস্থায় কেন ও কিভাবে আমার নামে সাংবাদিক প্রনোদনার চেক বরাদ্দ হলো সেটা বোধগম্য নয়।
অনুরূপ বক্তব্য দিয়েছেন ডেইলি স্টারের লালমনিরহাট প্রতিনিধি এস দিলীপ রায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here