লালমনিরহাট জেলা প্রশাসকের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। নিজের বাড়িতে বসে কাজ করতে পারবে বিড়ি শ্রমিকরা।

বিশেষ রিপোর্টঃ মানবিক দিক বিবেচনা করে অবশেষে বিড়ি শ্রমিকদের ঘরে বসে কাজ করার মৌখিক অনুমতি দিয়েছেন লালমনিরহাটের জেলা প্রশাসক মোঃ আবু জাফর।

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস সংকট মোকাবিলায় বন্ধ হয়ে যাওয়া লালমনিরহাটের আকিজ বিড়ি ফ্যাক্টরির শ্রমিকেরা অমানবিক জীবন যাপন করছে। স্থানীয় মেম্বার চেয়ারম্যান তাদের ত্রান সামগ্রী না দেওয়ায় পরিবারের সন্তানদের নিয়ে খেয়ে না খেয়ে তাদের দিন অর্ধাহারে অনাহারে কাটছে।
এমতাবস্থায় লালমনিরহাটের জেলা প্রশাসকের কাছে তারা কাজ করার দাবী জানিয়েছে।
মানবিক দিক বিবেচনা করে সন্তানদের নিয়ে দুমুঠো খেয়ে বেচে থাকার জন্য নিজেদের বাড়িতে বাড়িতে বিড়ি বানানোর অনুমতি চান শ্রমিকরা।
শ্রমিকদের কথা ভেবে লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক মোঃ আবু জাফর নিরাপদ দুরত্ব বজায় রেখে বাড়িতে বসে বিড়ি বানানোর কথা বলেছেন।
লালমনিরহাট নিউজ২৪ এর সাথে মুঠোফোনে তিনি জানিয়েছেন, শ্রমিকরা নিজেদের সুরক্ষিত করে তাদের বাড়িতে বসে বিড়ি বানাতে পারবে।
এছাড়াও অভাবী শ্রমিকদের তালিকা তৈরি করে পরিবার প্রতি ত্রান দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ১৪ এপ্রিল লালমনিরহাটের সাপ্টিবাড়িতে অবস্থিত আকিজ বিড়ি ফ্যাক্টরিতে শ্রমিকদের দিয়ে বিড়ি তৈরী করছে কর্তৃপক্ষ। যেখানে নিরাপদ দুরত্ব বজায় না রেখেই শ্রমিকরা কাজ করছিলো। এমন খবর লালমনিরহাট নিউজ২৪ এর কানে এলে সঙ্গে সঙ্গে তারা তাদের টিম নিয়ে হাজির হয়। এরপর ফ্যাক্টরির ভিতর প্রবেশ করে তারা ঘটনার সত্যতা পান।
এরপর জেলা প্রশাসককে বিষয়টি জানিয়ে নিউজ টিম সরাসরি লাইভ সম্প্রচার করে।
শ্রমিকদের কাজ করার দৃশ্যগুলো সারাদেশে ভাইরাল হয়ে যায়। এরমধ্যেই জেলা প্রশাসক মোঃ আবু জাফর ফ্যাক্টরি বন্ধের নির্দেশ দেন।
ফ্যাক্টরি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় শ্রমিকরা মানবেতর জীবনযাপন করছে এই আকুতি জেলা প্রশাসকের কাছে তারা জানান। এরপর সুযোগ্য জেলা প্রশাসক মানবিক কারণে শ্রমিকদের বাড়িতে বসে কাজ করার মৌখিক অনুমতি দেন। জয় হলো মানবতার।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে